Friday, 8 April 2016

কোদালকাটি ইউপি নির্বাচন নৌকায় ভোট না দিলে মামলার হুমকি




কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার কোদালকাটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট না দিলে মামলার হুমকি দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। সরেজমিনে গেলে বিএনপি প্রার্থীর কর্মীরা এ অভিযোগ করেন।


কোদালকাটি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আব্দুল হাকিম মাস্টার অভিযোগ করেন, সম্প্রতি ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) প্রার্থী জাতীয় পার্টির পাপু মিয়া ও আওয়ামী লীগের তোতা মিয়ার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। এখানে বিএনপির কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়। অথচ বিএনপির প্রার্থীকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দেওয়া হচ্ছে। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ভয়ে বিএনপির প্রার্থীর কর্মীরা গ্রামে গ্রামে ভোট চাওয়ার জন্য যেতে পারছে না। তাদের ভয়, থানায় অজ্ঞাত ৩০ জন আসামির মধ্যে ফাঁসিয়ে দেওয়া হতে পারে।


বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী ছবের উদ্দিন বলেন, ‘আমার কর্মীরা এখন আতঙ্কে। আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও কর্মীদের ভয়ে আমরা প্রচার করতে পারছি না। কর্মীদের মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী হুমায়ুন কবির।’


সরেজমিনে গেলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি প্রার্থীর এক কর্মী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির ছক্কু বাজারে বলে বেড়াচ্ছেন, আমাকে ভোট দেবে না, যারা বিএনপির পক্ষে কাজ করবে তাদের মামলায় ফাঁসিয়ে দেব। এ কারণে মামলায় ৩০ জনের নাম উল্লেখ করা হয়নি। আমি যাকে ইচ্ছা তাকে ওই অজ্ঞাতদের মধ্যে ঢুকিয়ে দেব।’


এ বিষয়ে কোদালকাটি ইউপির আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবির ছক্কু বলেন, ‘আপনি যেসব অভিযোগের কথা বলছেন, তা সত্য নয়। বরং ছাত্রদলের কর্মীরা আমার কর্মীকে কুপিয়ে আহত করেছে। তার হাতের আঙুল কেটে নিয়েছে।’



No comments:

Post a Comment